সর্বশেষ আপডেট

ফয়সাল আহাম্মেদ আবদুল্লাহ।

নরসিংদীতে পুলিশের পৃথক অভিযানে দুটি পিস্তল, দুই রাউন্ড কার্তুজ ও ইয়াবাসহ ৬ সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) সকালে এ তথ্য জানান জেলা পুলিশের মিডিয়া সমন্বয়ক ও পুলিশ পরিদর্শক রুপণ কুমার সরকার।


এর আগে সোমবার (১১ জানুয়ারি) নরসিংদী জেলার বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতরা হলো- নরসিংদী মডেল থানাধীন ভাগদী এলাকার আঃ গফুর মিয়ার ছেলে ইমন আহম্মেদ (২০), বাগহাটা পালপাড়া এলাকার গোলজার হোসেন এর ছেলে রাজীব কাজী (২৫), মাধবদী থানাধীন নওয়াপাড়া এলাকার মোহাম্মদ আলীর ছেলে আজিজুল (২১), পলাশ থানার ইছাখালী এলাকার ইমান হোসেনের ছেলে মোঃ রাসেল মিয়া (২৭), একই থানার বারারচর এলাকার জামাল উদ্দিন সরকার এর ছেলে মামুন (৪০), ও শিবপুর থানার কামারগাও এলাকার জনাব আলীর ছেলে জিলন (২২)।


জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) পুলিশ পরিদর্শক রুপণ কুমার সরকার জানান, সোমবার দিন ও রাতে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় অস্ত্র উদ্ধার ও মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে ডিবি। এসময় পৃথক স্থান থেকে ৬ জনকে গ্রেফতার ও তাদের দখল হতে দুটি পিস্তল, দুই রাউন্ড কার্তুজ ও ১৯০ পিস পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।


এরমধ্যে ডিবির এসআই মোস্তাক আহম্মেদ ও এএসআই রাহুল মজুমদার নরসিংদী মডেল থানার ভাগদী এলাকা হতে একটি সচল পিস্তলসহ ইমন আহম্মেদকে গ্রেফতার করেন। এসআই তাপস কান্তি রায় ও এএসআই আনোয়ার হোসেন নরসিংদী সদর হতে রাজীব কাজী কে ১০০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেন।


এসআই নূরে আলম হোসাইন ও এএসআই আবুল কালাম আজাদ মাধবদীর নওয়াপাড়া হতে ৫০ পিস ইয়াবাসহ চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী আজিজুলকে গ্রেফতার করেন।


এসআই মাহমুদুল হাসান মারুফ ও এএসআই মোহাম্মদ আব্দুল আলীম পলাশ থানাধীন দক্ষিণ দেওড়া হতে একটি পিস্তল ও ২ রাউন্ড কার্তুজসহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী মোঃ রাসেল মিয়া ও মামুনকে গ্রেফতার করেন। অপরদিকে শিবপুরের কামারগাও হতে ৪০ পিস ইয়াবাসহ জিলকে গ্রেফতার করেন।
এসব ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় পৃথক মামলা দায়ের করা হয়েছে।