সর্বশেষ আপডেট

ফয়সাল আহাম্মেদ আবদুল্লাহ।

নরসিংদীর বেলাব উপজেলা নারায়ণপুর সরাফত উল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয়ে অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে গিয়ে সহপাঠীদের হাতে মারধরের শিকার হয়ে মো: শুভ মিয়া (১২)নিহত হয়েছে।
২ ডিসেম্বর রোজ বুধবার রাত ৯ টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

শুভ রায়পুরা উপজেলা রাধানগর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের মো: লায়েছ মিয়ার ছেলে। সে নারায়ণপুর সরাফত উল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থী । বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহমান জানান গত ২৮ নভেম্বর (শনিবার) নারায়ণপুর সরাফত উল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয়ে অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে যান শুভ।
শ্রেণিকক্ষের ফার্স্ট বেঞ্চে বসাকে কেন্দ্র করে শুভর সঙ্গে রিফাত প্রধান ও জাহেদ হাসান রিফাতের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এরই জেরে স্কুলে প্রাঙ্গণে ওই দুইজনসহ আরো ৭/৮ জন মিলে শুভর মাথায় ও শরীরে আঘাত করে পালিয়ে যায়। তার পর শুভ প্রধান শিক্ষককে বললে স্কুল খুললে সুষ্ঠ বিচারের আশ্বাস দেন। প্রধান শিক্ষকের কাছে জড়িতদের বিচার চেয়ে বাড়ি ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়েন শুভ। আঘাতে তার মাথায় রক্ত জমাট বেধে যায়। পরে আহত শুভকে তার স্বজনরা প্রথমে স্থানীয় প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা করান। পরে অবস্থার অবনতি দেখা দিলে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতলে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঘটনার পাঁচদিন পর বুধবার রাতে মারা যায়।

রায়পুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিনুল কাদির বলেন, নিহত স্কুলছাত্রের লাশ ময়না তদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত স্কুল ছাত্রের মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করা হয়েছে। যেহেতু বিষয়টি বেলাব থানার সেহেতু মামলাটি বেলাব থানায় দায়ের করা হবে।