সর্বশেষ আপডেট

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে দ্বিতীয় শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে রজিব শেখ (৩০) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১০ অক্টোবর শেরপুর উপজেলায় দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়। ঘটনার দিন শিশুটি অন্য শিশুদের সঙ্গে বাড়ির পাশের একটি পুকুরে বড়শি দিয়ে মাছ ধরছিল। এসময় রজিব চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে পাশের ধানক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। শিশুটি চিৎকারের চেষ্টা করলে রজিব তার গলায় ছুরি ঠেকিয়ে হত্যার ভয় দেখায়। এ সময় ওই স্থানীয় এক নারী বিষয়টি জানতে পারলে সেখান থেকে পালিয়ে যায় রজিব।

বুধবার (১৪ অক্টোবর) দুপুরে আটক রজিবকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) শিশুটির মা শেরপুর থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন। পরে রাতভর অভিযান চালিয়ে শেরপুর উপজেলার জয়লা বটতলা এলাকা থেকে রজিবকে আটক করে পুলিশ।

পরে স্থানীয় ওই নারী শিশুটির মাকে বিস্তারিত বলেন। ধর্ষণের ফলে শিশুটির রক্তপাত হচ্ছিল এবং শরীরে জ্বর আসে। তারা স্থানীয়ভাবে শিশুটির চিকিৎসা করেন। সামাজিকভাবে হেয় হওয়ার ভয়ে শিশুর পরিবার ঘটনা চেপে যান।

শেরপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. গাজিউর রহমান বাংলানিউজকে জানান, মঙ্গলবার ওই শিশুটির মা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় অভিযুক্ত রজিব শেখকে আট করে বুধবার দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে। সেইসঙ্গে ওই শিশু শিক্ষার্থীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।